দশ বছরের বড় সাইফকে কেন বিয়ে করেছেন কারিনা?

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ইং ৪০ বছরে পা রাখবেন বলিউডের জনপ্রিয় তারকা কারিনা কাপুর। তবে এই বলিউড সুন্দরীর আরেকটি সুন্দর পরিচয় আছে, নবাব খানদানের শাহজাদা  স্ত্রী তিনি। কিন্তু এটা হয়তো অনেকেরই জানা নেই যে দশ বছরের বড় সাইফকে কেন বিয়ে করলেন বলিউডের জনপ্রিয় তারকা কারিনা কাপুর?


বলিউড প্রিয় সবার জানা যে,একসময় এই বলিউড তারকার সঙ্গে শহীদ কাপুরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। অনেকেই ধরে নিয়েছিলেন, তাঁদের এই প্রেম বিয়ে অবধি গড়াবে। কিন্তু তা হয়নি। শহিদ কাপুরের জুটি হিসেবে কারিনা রাতারাতি তারকা বনে যান। দুজনে ব্যক্তিগতভাবেও জড়িয়ে পড়েন সম্পর্কে। বলিউডে বহুল চর্চিত ছিল তাদের প্রেম। তবে সেই সম্পর্ক স্থায়ী হয়নি। 

কারিনা পরে প্রেম করে বিয়ে করেন নবাব বাড়ির ছেলে সাঈফ আলি খানকে। ‘তাশান’ ছবির সেটে কারিনা ও সাইফ একে অপরের প্রেমে পড়েন। এই প্রেম আরও গাঢ় হয় ‘কুরবান’ ছবির শুটিংয়ের সময়। তাঁদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সাইফের সঙ্গে ঘর বাঁধার কারণ প্রসঙ্গে কারিনা বলেন, ‘বিয়ের আগে আমি কিছু শর্ত সাইফের সামনে রাখি। 


আমি ভীষণ স্বাধীনচেতা ও আত্মনির্ভরশীল। বিয়ের পরও আমি আমার অভিনয়ের কাজ চালিয়ে যেতে চেয়েছি। আমি স্ত্রী হব, আবার মা-ও হব। কিন্তু তার প্রভাব যেন আমার কাজের ক্ষেত্রে না পড়ে। আর আমি
নিজে অর্থ উপার্জন করতে চাই।’সাইফ তাঁর আদরের ‘বেবো’র সব শর্ত মেনে নিয়েছিলেন। আর তখনই বিয়েতে ‘হ্যাঁ’ বলেন কারিনা। 


 এই দুই বলিউড তারকার দীর্ঘ প্রেমের পর ২০১২ সালের ১৬ অক্টোবর বিয়ে হয়। সেই সংসারে নিজেকে পুরোপুরি সঁপে দিয়েছেন তিনি। ভক্তরা এই দম্পতিকে ভালোবেসে সাঈফিনা বলে ডাকে। ২০১৬ সালের ২০ ডিসেম্বর এ দম্পতির প্রথম ছেলেসন্তান তৈমুর আলি খানের জন্ম হয়। তাঁদের জীবনে ছোট নবাব তৈমুর আসে। তবে সাইফ কিন্তু তাঁর কথার নড়চড় করেননি। 

 
বিয়ের পর কারিনা ফিল্মের কাজ চালিয়ে গেছেন। এক সন্তানের মা হয়েও আবার পর্দায় ফিরে আসছেন। রিয়া কাপুরের ‘বিরে দে ওয়েডিং’ ছবিতে তাঁকে দেখা যাবে। স্ত্রী, মা, অভিনয়—সব দায়িত্ব সমানভাবে পালন করছেন কারিনা। তাদের দাম্পত্য জীবন আলোয় ভরিয়ে রেখেছে তৈমুর নামের একমাত্র সন্তান। তৈমুরকে ঘিরে বাবা মায়ের আহ্লাদের শেষ নেই।

আমাদের এ লেখাটি যাদ আপনার ভালে লাগে, তাহলে অবশ্যই আমাদের ফেসবুক পেজ এ লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকবেন। যদি আরো কিছু জানার থাকে তাহলে আমার এই পোস্টের নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন, আমি আমার সাধ্যমত আপনাদেরকে সঠিক তথ্যটি জানানোর চেষ্টা করব। আমাদের ফেসবুক পেজ এ লাইক বাটন ক্লিক করে পরবর্তী নিউজের সাথে আপডেট থাকবেন। বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ সবাইকে। ভালো থাকবেন আল্লাহ হাফেজ।

 Image Source: www.google.com

Post a Comment

0 Comments